কোন এক আধুনিক বীরের প্রার্থনা

খােদার উপরে যদি খােদ কারী আমিই না করি
তবে কেন এত শক্তি আমাকে দিয়েছ ?
বুদ্ধির তীক্ষতা দিয়ে পরমাণু তাইত ভেঙেছি;
বজ্রের প্রাখর্য দিয়ে আণবিক বোমাকে জ্বালাই;
ন্যাপাম বোমার ঘায়ে যুদ্ধক্ষেত্রে
মা ও শিশু যুবক বৃদ্ধের গাত্রচর্ম ছিনিয়ে পােড়াই,
অনবদ্য কান্না শুনে ট্র্যাজেডীর রসাস্বাদ করি ।
বাস্তুহারা লেজ তুলে পালাবে কোথায় ?
বিমানের জোশ নিয়ে উল্লাস-খেলায়
আগ্নেয় বেত্রের মার দিয়েছি নিয়ত ।
তোমার খলিফা আমি ।
তার সত্য প্রমাণিত কি করে সম্ভব
যদি না মৃত্যুর আর ধবংসের লীলায়
আজ্রাইল আমিই না বনি ?
তোমারই ধ্বংসের শক্তি আমার সত্তায় ।
প্রতিবিম্ব এঁকেছে নিয়ত :

আমিই তৈমূর আর হিটলার, কাইজার নেতা,
রণাংগনে বীরত্বের অধৈর্যের আমি অভিনেতা,
রোবাসপিয়র হয়ে একদিন গিলােটিন দিয়ে
রক্তের উৎসব দেখে তৃপ্তচিত্ত কিঞ্চিৎ হয়েছি,
গর্বিত, উদ্ধত মাথা তুলবার ক্ষমতা দিয়েছ,
হালাকু খানের নৃত্য তাইত করেছি ।
সর্ব শক্তিধারী যদি তুমি
তোমার ইচ্ছাতিরিক্ত যদি কিছু কোথাও না হয় ;
তোমারই ইচ্ছাতে আমি পরশুরাম অথবা রাবণ, অথবা সফেদ দৈত্য, ফেরাউন, ইয়াজুজ- মাজুজ, অথবা বন্যার সোত, ভূমিকম্প, আগ্নেয় উদগার ;
তোমারই শাস্তির আমি বিস্তৃত প্রতীক :

শােষিত নির্জিত সত্তা পদতলে গুড়ো করি আমি,
উধাও বিবেক নিয়ে অর্থের পুতুল যারা রচে,
সুদের খপ্পরে যারা হৃদয়ের বেচাকেনা করে,
ধর্মের বেসাতি করা উপায়ের একমাত্র পথ,
ভাষার মাহাত্ম্য যত তুমি শিখিয়েছ
তারই সুযোগ নিয়ে সত্যকে ভেংচি কাটে যারা
তাঁদের আওতায় যত ভাল হোক মন্দ হোক যত সবারে বিনষ্ট করে ভাল কি করি না ?

এ কথা অবশ্য সত্য,
সত্যকে উল্টোরথে আমিও চড়াই
বিষ দিয়ে বিষক্ষয়—কবিরাজী প্রথামত চলি ।
আমার কি দোষ ?
টাকার গদিতে যারা তাকিয়ায় ঠেস দিয়ে বসে,
সুদের উপরে সুদ, তস্য সুদ—একমাত্র পথ।
নচেৎ কঠিন পথ—শোষণ, পেশন ।
কখনো নাৎসী বনি, অথবা বাজাই
সমস্বরে একমাত্র পার্টির মহিমা ।
কি হবে অযথা বাক্যে, গালগল্পে, স্বাধীনতা গেয়ে ?
জন্মও স্বাধীন নয়, মৃত্যুও চয়িত নয়,
অদৃশ্য গুণের টানে মানুষের নৌকা ভেসে চলে
এক চর থেকে অন্য চরে
কখনোবা মগ্ন কূল থেকে চলে অকূল গংগায়।
একমাত্র নায়কত্ব, প্রভুত্বের জেহোভা মহিমা
আধুনিক সোফা হােক অথবা তখতে
অথবা সৈন্যাধ্যক্ষ-পালিশ পোশাকে।
বীর্যবন্ত শক্তিশালী আকাশের মতই ললাট,
বেতার, পত্রিকা নাচে পুতুলের নাচ
অংগুলি হেলায়,
খবরের কাগজের কলামে কলামে ।
ভাষার চাতুর্য দিয়ে গৌরবের পুঁথি রচি আমি
অথবা চালাই ঠাণ্ডা যুদ্ধ, বিতণ্ডায় জয়লাভ করি।
তােমার প্রতিভূ আমি।
এই পৃথিবীতে সর্ব শক্তি অর্জনের একমাত্র আমারি ত হক ।

সেই শক্তি, সে ক্ষমতা দাও দাও হে আমার প্রভু
আমাকে বানাও তুমি সত্যিকার তোমার প্রতিভূ, ন্যায় আর অন্যায়ের মানদণ্ড আমিই বানাব, স্বাধীনতা -লোভ আমি গলাচিপে বিনষ্ট করাব,
এই ভূমি, এই বন, এ পাহাড় জ্বালাবার তাধিকার দাও,
ভাষার চাতুর্য দিয়ে অর্থকে যদিচ্ছা উধাও করাব,
কাব্যিক স্বাপ্নিক চাঁদ কাল করে দেব,
শক্তির গৌরব -নৃত্যে গ্রহদের নৃত্য হোক আমার অধীন।
আমার চেতনা বাষ্পে সমস্ত চেতনা হোক বাতাসে উড্ডীন ।।

তথ্য সূত্র: মাহে নও

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.